ছবিটিতে খাওয়া দাওয়া করতে দেখা যাচ্ছে নায়িকা শাবানার স্বামী চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক ওয়াহিদ সাদিক, মুশফিকুর রহমান গুলজার ও বদিউল আলম খোকনকে

২০ বছর পর শাবানা আপার হাতের রান্না খেলাম: নির্মাতা গুলজার


উপরের ছবিটিতে তৃপ্তি সহকারে খাওয়া দাওয়া করতে দেখা যাচ্ছে নায়িকা শাবানার স্বামী চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালক ওয়াহিদ সাদিক, মুশফিকুর রহমান গুলজার ও বদিউল আলম খোকনকে। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে নির্মাতা গুলজার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ২০ বছর পর শাবানা আপার হাতের রান্না খেলাম। শুধু খাওয়া দওয়াই নয়, দারুণ আড্ডাও হলো। আর এর সবই সম্ভব হয়েছে আমাদের সবার প্রিয় দুলাভাই জনাব ওয়াহিদ সাদিকের জন্য।

আড্ডা চলাকালীন নির্মাতা ওয়াহিদ সাদিক জানিয়েছেন যে- এখন থেকে তিনি নিয়মিত চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ওয়াহিদ সাদিক নির্মাতাদের আড্ডায় বলেছেন- ১৯ জুন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শাবানাকে যে সম্মান ও আন্তরিকতা দেখিয়েছেন তাতে আমরা মুগ্ধ। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুপ্রেরণাতেই এ দেশের জনমানুষের পাশে থাকবে, তাদের সুখ- দুঃখ ভাগাভাগি করে নেব। প্রধানমন্ত্রীর কার্যক্রম এগিয়ে নেবার যুদ্ধে আমরাও সৈনিক হবো। আমি রাজনীতি কিংবা রাজনৈতিক দল বুঝি না, আমি বুঝি জনদরদী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। তার মত মানুষ হয় না। তার মধ্যে দেখেছি বঙ্গবন্ধুর মতো দেশ ও দেশের জন্য অপরিসীম ভালোবাসা। সেই সাথে দেখেছি দেশ ও জনগণের কল্যাণ কাজে তার কী অদম্য স্পৃহা!  আমরা মনেকরি, দেশ পরিচালনায় এই মুহূর্তে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। তাই আমরা তার পাশে থাকতে চাই।

শাবানার বাসায় রকমারি খাবার

নায়িকা শাবানার বাড়িতে আপ্যায়িত হয়ে অতন্ত সন্তুষ্ট চিত্তে নির্মাতা গুলজার লিখেছেন- পেট ভরে খেয়েছি, মন খুলে স্মৃতিচারণ করেছি আর প্রাণ খুলে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিয়েছি। অসংখ্য ধন্যবাদ শাবানা আপা ও ওয়াহিদ সাদিক দুলাভাইকে। আপনারা সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন এবং আমাদের মাঝেই থাকুন।

শাবানার বাড়িতে নির্মাতাদের এই আড্ডা হয়েছে সোমবার রাতে। দাওয়াতের পাশাপাশি জীবন্ত কিংবদন্তী শাবানা অভিনীত মুক্তিযুদ্ধের প্রথম চলচ্চিত্র ‘ওরা ১১ জন’ এর একজন গর্বিত অভিনেত্রী হিসেবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচলক সমিতির পক্ষ থেকে দেয়া সম্মাননা প্রদান করতেই শাবানার বাড়িতে গিয়েছিলেন নির্মাতারা।

উল্লেখ্য এই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছিল এফডিসিতেই। অনিবার্য কারণে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি নায়িকা শাবানা।

নিজ বাড়িতে পুরস্কার গ্রহণ করছেন শাবানা

বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কালজয়ী চলচ্চিত্র ‘ওরা ১১ জন’। এই সিনেমার শিল্পী ও কুশলীদের সম্মাননা দেওয়ার উদ্যোগ নেয় চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। সেই হিসেবে গত ২৫ মে একটি আড়ম্বর আয়োজনের মধ্য দিয়ে তুলে দেওয়া হয় সম্মাননা।

এই আয়োজনে সম্মাননাপ্রাপ্তরা হলেন- সিনেমার অভিনয়শিল্পী খসরু, সৈয়দ হাসান ইমাম, মিরানা জামান, নায়করাজ রাজ্জাক, সংলাপ লেখক ও অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান,  নূতন, কাজী ফিরোজ রশীদ, সিনেমার নির্মাতা চাষী নজরুল ইসলাম (মরণোত্তর), গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার, প্রযোজক মাসুদ পারভেজ (সোহেল রানা), চিত্রনাট্যকার কাজী আজিজ, পরিবেশক ইফখারুল আলম ও প্রধান সহকারী পরিচালক শামসুল আলম।

অন্যান্যরা সম্মাননা গ্রহণ করলেও অনুষ্ঠানে নায়করাজ রাজ্জাক, খসরু, শাবানা ও এটিএম শামসুজ্জামান  উপস্থিত ছিলেন না। প্রয়াত নির্মাতা চাষী নজরুল ইসলামের হয়ে সম্মাননা গ্রহণ করেন তার স্ত্রী জোৎস্না কাজী।

Facebook Comments