সেই বাল্যবিবাহকে আমি মানতে পারিনি : এভ্রিল


প্রথমবারের মতো ৬৭তম ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশে আয়োজন করা হয় ‘লাভেলো মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ শিরোনামের এক প্রতিযোগিতা।

প্রায় দেড় মাস যাচাই-বাছাইয়ের পর গত শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ঘোষণা করা হয় প্রতিযোগীর নাম। বিজয়ী হন চট্টগ্রামের মেয়ে জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। তবে প্রথমে জান্নাতুল সুমাইয়া হিমিকে বিজয়ী ঘোষণা করা হলেও তাৎক্ষণিকভাবে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, হিমি নন, বিজয়ী হয়েছেন এভ্রিল। আর হিমি হয়েছেন দ্বিতীয় রানারআপ। বিতর্কের সূত্রপাত সেখানেই। গণমাধ্যমে ওঠে আসে এভ্রিলের বিয়ের খবর। নিয়ম অনুযায়ী এই প্রতিযোগিতার অংশগ্রহণকারীকে হতে হবে অবিবাহিত। বিয়ের খবর গোপন রাখার খবরটি প্রকাশ হওয়ার পর গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে কড়া সমালোচনার মধ্যে পড়ে আয়োজকরা।

সকল সমালোচনার জবাব দিতে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ফেসবুক লাইভে আসেন এভ্রিল।

ফেসবুক লাইভে এভ্রিল বলেন, ‘আসসালামু আলাইকুম। আপনাদের সামনে এখন কে বসে আছে? জান্নাতুল নাঈম। জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। যে কিনা পৃথিবীর সব মানুষের কাছে এখন সম্মান রেখে কয়েকটা কথা বলতে চাচ্ছে। আর চুপ করে থাকতে পারিনি। জানি, আপনাদের অনেকের অনেক ধরনের প্রশ্ন আমার কাছে আছে। কেন আমি বিয়ের কথা গোপন রেখেছি। কেন আমি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছি। আমি ছোটবেলা থেকে কখনোই কোনো বাধা-বিপত্তির কাছে মাথা নিচু করিনি। কখনোই না। এখনো পর্যন্ত। যখনই বাধা-বিপত্তি এসেছে, চুপ করে সেটার বিপরীতে গিয়ে বারবার নিজেকে শুধরে নিয়েছি। বারবার নিজেকে আমি পরিবর্তন করেছি।’

নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে এভ্রিল বলেন, ‘১৬ বছরের একটা মেয়েকে তার বাবা জোর করে বিয়ে দিচ্ছে। সেই মেয়ে বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে এসেছে। আজ সেই মেয়ে এখন সাকসেসফুল। সেই মেয়ে তাঁর সমাজের কোনো কথা শোনেনি। সেই মেয়ে আশপাশের মানুষ কী বলেছে সেটাও কানে নেয়নি। তার একটাই উদ্দেশ্য ছিল- যেখানে ১৯ কোটি মানুষের বাংলাদেশে বাল্যবিবাহ একটা দৈনন্দিন যন্ত্রণার ঘটনা, সেখানে সেই বাল্যবিবাহকে আমি মানতে পারিনি। বাংলাদেশেও আইন আছে। ১৬ বছরের একটা মেয়েকে বিয়ে দিলে সেই বিয়ে হয় না। সেটা বাল্যবিবাহ হিসেব গণ্য। আমি চেয়েছিলাম সেটার বিপরীতে কাজ করতে। আমি প্রত্যেকটা মেয়েকে এটাই বোঝাতে চেয়েছি, একটা মেয়ে চাইলে অনেক কিছু করতে পারে।’

দেশে নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ে এভ্রিল যোগ করেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশে একটা মেয়ে চাইলে অনেক কিছু পারে। বেগম রোকেয়ার মতো একটা মেয়ে চাইলে অনেক কিছু পারে। চাইলে নিজেদের অধিকার নিজেই আদায় করে নিতে পারে। সে ডিভোর্সি হোক সে ম্যারিড হোক। সে অন্য কেউ হোক। এনিথিং। আমি ডিভোর্সি, ফাইন। আমি একটা মেয়ে। আমি একটা মানুষ। মানুষ হিসেবে আমার তো অধিকার আছে একটা ইন্টারন্যাশনাল প্লাটফর্মে গিয়ে নিজেকে উপস্থাপন করা। কই আমি তো নিজে জন্য কিছু চাইনি। আমি চেয়েছি দেখাতে একটা মেয়ে চাইলে কী কী করতে পারে।’

এদিকে, এভ্রিলের বিয়ের খবর প্রকাশের পর বিষয়টি মূল আয়োজকদের জানানো হবে বলে জানান ‘লাভেলো মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’- এর আয়োজক স্বপন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘যদি তাঁর বিয়ের খবর সত্য হয়, তাহলে নিয়ম অনুযায়ী যা করতে হবে আমরা তা-ই করব। আমরা তাঁর ব্যাপারে আগামীকাল লন্ডনের আয়োজকের সঙ্গে আলাপ করব। তাঁরা যেটা সিদ্ধান্ত নেবেন, সেটাই চূড়ান্ত হবে।’

/ এনটিভি

Facebook Comments