‘শুক্রাণুর জন্য’ পুরুষ শিক্ষককে তিন নারীর অপহরণ!


শুক্রাণুর জন্য এক পুরুষ শিক্ষককে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে তিন নারীর বিরুদ্ধে। শুক্রাণু সংগ্রহের জন্য শারীরিক হেনস্তার পর ৩৯ বছর বয়সী ওই শিক্ষককে রাস্তায় ফেলে রাখা হয়। জিম্বাবুয়ের পূর্বাঞ্চলের মেচেক গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস জানায়, ওই তিন নারীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তারা মূলত ‘শুক্রাণু চোর’ দলের সদস্য। তারা পর্যটকদের অপহরণ করে থাকে। এরপর তাদের শরীর থেকে শুক্রাণু সংগ্রহ করে বিক্রি করে।

পুলিশ আরো জানায়, জিম্বাবুয়ের মেচেক গ্রামে যাওয়ার জন্য ওই শিক্ষককে একটি নীল রঙের বিএমডব্লিউ গাড়িতে ওঠার জন্য আহ্বান জানান কয়েকজন নারী। এরপর ওই শিক্ষককে একধরনের কোমল পানীয় পান করতে দেওয়া হয়। সেটি পান করার পর থেকেই তিনি তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন এবং ঘুমিয়ে পড়েন।

সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে জানা যায়, ঘুমিয়ে পড়ার পর ওই শিক্ষক নিজেকে একটি কক্ষে বন্ধ অবস্থায় পান। এ সময় তাঁর জননাঙ্গ থেঁতলানো অবস্থায় ছিল। এ ছাড়া তাঁর কাছে থাকা ১২০ মার্কিন ডলারও নিয়ে নেওয়া হয়।

এরপর দুই নারী এসে ওই শিক্ষকের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চান। কিন্তু তিনি অস্বীকার করলে তাঁকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। পরে ওই শিক্ষককে ফলের রস খাওয়ানো হয়। এরপর তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

পরদিন ওই শিক্ষককে রাস্তার পাশে ফেলে রাখা হয়। পরে স্থানীয়রা তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে।

Facebook Comments