ফাইল ছবি

‘রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া কঠিন’


নিজস্ব প্রতিবেদক: অতিরিক্ত মানুষের চাপ বহন করার ক্ষমতা, সামর্থ্য বাংলাদেশের নেই। বর্ডার খুলে দিলে রোহিঙ্গাদের রাখব কোথায়? ওই কাজ করলে ভেতরে কিছু চক্রান্ত হতে পারে। তখন পরিস্থিতি অন্যরকম হতে পারে। তাই ওদের আশ্রয় দেওয়া কঠিন। বললেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার মোড়ে মহাসড়ক পরিদর্শন করতে গিয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, চলমান রোহিঙ্গা সংকট মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। তাদের দেশের একটা গোষ্ঠীকে অত্যাচার করা হচ্ছে, যা মানবিক বিপর্যয়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকে বাড়িঘর হারিয়েছে। এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

চলমান ঈদ যাত্রা নিয়ে কাদের বলেন, এই মুহূর্তে সব রাস্তা যান চলাচলের উপযোগী। মানুষ স্বস্তিদায়ক পরিবেশে বাড়ি ফিরছেন। এত ভয়ভীতির মধ্যেও আমরা রাস্তা সচল রেখেছি। আর একদিন ঈদযাত্রা হবে। আশা করি, মানুষ স্বস্তিতে বাড়ি ফিরবেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, টানা বর্ষণের কারণে এবার ঈদ নিয়ে ভয় ছিল। অনেক রাস্তা ডুবে গেছে। কোথাও রাস্তার চিহ্ন ছিল না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা সবাই রাস্তায় নেমেছি। ভাঙাচোরা রাস্তা মেরামত করছি।

মন্ত্রী বলেন, জঙ্গি তৎপরতা একটা বৈশ্বিক দৃশ্যমান বিষয়। উন্নত গণতান্ত্রিক দেশে এটা হয়ে আসছে। আমাদের দেশে হোলি আর্টিজান ও শোলাকিয়াসহ অনেকগুলো ঘটনা ঘটেছে। এখন জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সরকার, কাউন্টার টেররিজম ইউনিট এ ক্ষেত্রে তৎপর রয়েছে।

Facebook Comments