যদি ফিরে আসো

বিপুল কুমার


জানি,
তুমি এ’বেলা মেলেছ আপন ডানা,
উড়ে চলেছ,কোন এক সুখের ঠিকানায়,
স্বপ্নের খোজে, হয়ত পেয়েও গেছ তাই !
কি’বা প্রয়োজন, রবে এ আশাহীন,
অপ্রাপ্ত ভাল বাসায়।
কি’বা দোষই বা তোমার,
আমি পারিনিত সেই স্বপ্ন দিতে,
যেটুকু তুমি চেয়েছিলে দু’হাত বাড়ায়ে,
তুমি চাইছো দুঃখকে মারায়ে, সুখের সন্ধানে,
দারিদ্রতা আমার ! পারেনিতো তোমায় ধরে রাখতে।

যেটুকু চেয়েছিলে নিতান্তই নগন্য ,অতি সামান্য,
শুধু পেয়েছ শূণ্য আর শূণ্যতা,
শুধুই কি তাই……..
না পাওয়ার তিক্ততা, করেছে তোমায় অভিমান্য।

হেরে গিয়েছি,গেড়ে বসেছে আজ,
জীবদ্দশায় স্বপ্ন গুলো হারা ছন্ন,
কান্না পায়,তবু নেই কান্না,
শিরশির করে বুকের ভেতরটা,
চেপে রয় আকুলতা, মনটাও যেন পোড়া অরন্য।

তোমার সুখেতে আমি বাধা নই,
নেইতো কোন আপন অভিপ্রাশ,
যতই দুঃখ,যতই কষ্ট, ঢেঁকে থাকনা,
শূণ্য হোক, আরো শূণ্য,
তুমি সুখে থাক,পুষ্প পাপড়ি বিছানো সে পথ,
পেয়েছ যে ঠিকানা, মোর কামনায় তব সুখ বাস।

হয়ত তুমি আছ, হয়ত বা তুমি আজ নাই,
আছ এ জড়তায়, আছ বন্ধি চার দেয়ালে,
ভাল বাসা! সে’তো অনেক দুরে…..
মনটা সে’তোমার ছোটে,
স্বপ্নের পায়রার আশে,
নেই মানা, আমি না’ই বা হলেম প্রাচীর,
খোল ডানা,
যদি চায় মন, ঊড়ো তবে সেই আকাশে।

আমিও কাটাব যে প্রহর ,স্বপ্ন তোমার, ডালা সাজায়ে,
যদি ফিরে আস, না’ইবা এলে,
তবুও তোমার পথ পানে,দৃষ্টিহারা আঁখিতে চেয়ে চেয়ে।

Facebook Comments