ফাইল ছবি

মৌসুমীর পদত্যাগের কারণ জানালেন ওমর সানী


‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি হচ্ছে শিল্পীদের জন্য। এখানে প্রত্যেক শিল্পী সব সমস্যায় সবার পাশে থাকবে, ভালো কাজে উৎসাহ দেবে। কিন্তু কী হচ্ছে এখন শিল্পী সমিতিতে? এখানে এখন নিজেদের মাঝে কাদা ছোড়াছুড়ি চলছে, সমিতি শিল্পীদের সম্মান রক্ষায় কোনো ভূমিকা রাখছে না।’ নায়িকা ও স্ত্রী মৌসুমী সমিতি থেকে পদত্যাগের পর এভাবেই এনটিভির কাছে প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছিলেন অভিনেতা ওমর সানী।

চলচ্চিত্রের জ্যেষ্ঠ শিল্পীদের অপমান প্রসঙ্গে সানী বলেন, ‘কিছুদিন আগে নায়করাজ রাজ্জাক সাহেবকে অপমান করা হয়েছে; কিন্তু চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। বাপ্পারাজকে নিয়ে অনেক কিছুই হয়েছে বিগত দিনে, কিন্তু সেখানে কেউ কোনো কথা বলেনি। ব্যক্তি শাকিবকে নিয়ে আমার কিছু বলার নেই; কিন্তু শিল্পী শাকিব খানকে লাঞ্ছিত করা হলো, সেটারও কোনো প্রতিবাদ করা হয়নি। কিছুদিন আগে কমেডি অভিনেতা চিকন আণীকে শুটিংস্পটে মারধর করা হলো, কোনো প্রতিবাদ করা হয়নি। তা হলে সেই সমিতির কার্যনিবাহী কমিটিতে থাকাটা কতটা যুক্তিসংগত হতো মৌসুমীর?’

কিছুদিন আগে চিত্রনায়িকা শাবানাসহ আরো অনেকে অসুস্থ পরিচালক আজিজুর রহমানকে সাহায্যের আবেদন করলে তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওমর সানী মনে করেন, চলচ্চিত্রের শিল্পীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিতে পারত শিল্পী সমিতি। তা ছাড়া সমিতির পক্ষ থেকে যখন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে গেলেন নবনির্বাচিতরা, তখন অনেককেই ইচ্ছাকৃতভাবে যেতে বলা হয়নি বলেও অভিযোগ করেন সানী। তিনি বলেন, ‘মৌসুমীকে বলা হয়নি। আমি বিষয়টি জানতে চেয়েছিলাম। তখন জায়েদ খান আমাকে বলেন, তিনি নাকি এসএমএস করেছিলেন। অথচ একটিবার ফোন করতে পারেননি। এত কিছুর পর এই সমিতির কার্যনির্বাহী পদে থেকে কী লাভ?’

গতকাল সোমবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ থেকে পদত্যাগপত্র সমিতিতে জমা দেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মৌসুমী।

সূত্র: এনটিভি অনলাইন

Facebook Comments