ঈদে ঘুরে আসুন মহামায়া লেক


মোঃ হাসান মিলু: নৈসর্গিক সৌন্দর্যের এক অপূর্ব লীলাভূমি মিরসরাই। যেখানে গিরি-নদীর মিলনস্থলে ছায়া হয়ে দিগন্তে মিশে গেছে নীলাকাশ। এ যেন কোনও শিল্পীর ক্যানভাসে কল্পনার রঙে আঁকা ছবি। মিরসরাইয়ের এই সৌন্দর্যকে দেশের সীমানা পেরিয়ে পৃথিবীর মানুষের কাছে আরও সহজে পরিচয় করিয়ে দিতে এবং দেশের পর্যটন শিল্পকে আরও একধাপ এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে বর্তমানে এখানে নির্মিত হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কৃত্রিম লেক ‘মহামায়া প্রকল্প’। যেখানে অসংখ্য পাহাড়ের বুক চিরে আসা ছোট-বড় অসংখ্য পাহাড়ি ছড়ার মিলন মোহনায় রয়েছে স্বচ্ছ সবুজ জলাধার। পাহাড়ি ঝরনা প্রবাহ হতে সৃষ্ট জলধারা এর সৌন্দর্য বহুগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।

১১ বর্গকিলোমিটারের বিশাল এই লেকে আপনি ইচ্ছামত নৌকা দিয়ে ঘুরতে পারবেন এবং ঝর্ণাতে গিয়ে সময় কাটাতে পারবেন সর্বোপরি লেকের সবুজ পরিবেশ আপনাকে মুগ্ধ করবে।

কিভাবে যাবেন

সড়ক পথে ঢাকা থেকে 

বিআরটিসি এর বাসগুলো ছাড়ে ঢাকা কমলাপুর টার্মিনাল থেকে। আর অন্যান্য এসি, নন এসি বাসগুলো ছাড়ে সায়দাবাদ বাস স্টেশন থেকে। আরামদায়ক এবং নির্ভরযোগ্য সার্ভিসগুলো হল এস.আলম ও সৌদিয়া, গ্রীনলাইন, সিল্ক লাইন, সোহাগ, বাগদাদ এক্সপ্রেস, ইউনিক ইত্যাদি । সবগুলো বাসই মিরসরাইতে থামে। মিরসরাই বাস স্ট্যান্ড থেকে সিএনজি অটোরিক্সা বা অন্য কোন বাহনে ঠাকুরদিঘী বাজারে এসে পূর্ব দিকের রাস্তা দিয়ে মহামায়ায় প্রবেশ করতে হয়।

 চট্টগ্রাম থেকে 

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় যাওয়ার বাসগুলো অলঙ্কার, এ কে খান, কর্ণেলহাট বাস ষ্টেশন থেকে ছাড়ে । আর জেলার অভ্যন্তরের বিভিন্ন রুটের বাসগুলো মাদারবাড়ী, কদমতলী বাসষ্টেশন থেকে ছাড়ে। চট্টগ্রাম থেকে মিরসরাই আসতে হলে জেলার অভ্যন্তরীন রুটের বাসগুলোতে ভ্রমণ করতে হবে।

 ফেনী থেকে 

ফেনী শহর  থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে নোয়াখালী, কুমিল্লা পরশুরাম, চাঁদপুর ও ফেনীর বাস চলাচল করে। যে কোন বাসে করে আপনি মিরসরাই বা ঠাকুরদিঘী চলে আসতে পারেন।

ছবি তুলেছেন: সাজ্জাদুল হাসান পন্নি

Facebook Comments