প্রতিমন্ত্রী থামলেন, আগে যেতে দিলেন বৃদ্ধকে!


রেল স্টেশনে অন্যান্য মানুষের সঙ্গে সাধারণভাবেই হাঁটছিলেন। পাশে নেই কোন নিরাপত্তা কর্মী। খুব সাদামাটা ভাবেই স্টেশন ত্যাগ করছিলেন সংসদ সদস্য এবং সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

দৃশ্যটি শুক্রবার (১৮ আগস্ট) নাটোর রেলওয়ে স্টেশনে দেখা মিলে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সম্পাদক এস. এম. জাকারিয়া বুলবুল বলেন, ‘মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী আরিফা জেসমিন কনিকা, আর তিন ছেলে অপূর্ব, অর্জন ও অনির্বান।  এসময় অতিরিক্ত কোন নিরাপত্তা কর্মী ছিল না তাঁর সঙ্গে।  সাধারণ মানুষের সঙ্গে হেঁটে হেঁটেই প্লাটফর্ম ত্যাগ করেন’।

তিনি বলেন, ‘এসময় হঠাৎ বাইরে বের হওয়ার প্রধান ফটকে এক প্রবীণ ব্যক্তি প্রতিমন্ত্রীকে পাশ কাটিয়ে আগে বের হতে উদ্যত হোন। নিয়মমাফিক রেলওয়ের এক নিরাপত্তা কর্মী এসে বৃদ্ধকে আগে যেতে বাঁধা দেয়। সঙ্গে সঙ্গে মন্ত্রী মহোদয়ও দাঁড়ালেন।  বৃদ্ধটিকে আগে যেতে দেবার নির্দেশ দেন নিরাপত্তা কর্মীদের। এরপর তিনিও স্টেশন ত্যাগ করেন। মন্ত্রীর এমন সাদামাটা রূপ দেখে উপস্থিত সকলেই মুগ্ধ হোন’।

জুনাইদ আহমেদ পলক একজন আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী বিভাগের নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলা থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচিত বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ সংসদ সদস্য। পরে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

Facebook Comments